ইয়াবা ব্যবসায় নুরুল হাকিম অপ্রতিরোধ্য : দুই ভাইয়ের ডজন মামলা

প্রকাশিত: ৩:৪২ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৮, ২০২১

নিজস্ব প্রতিবেদক :

উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের তুতুরবিল এলাকার নাছির উদ্দিনের ছেলে শীর্ষ ইয়াবা কারবারি নুরুল হাকিম তার ভাই নুরুল বশর বারবার আইন শৃংখলা বাহিনীর হাতে ধরা পড়লেও অদৃশ্য শক্তির জোরে বের হয়ে আসে। তারা দুই ভাইয়ের রয়েছে ডজন মাদক মামলা।

জানাযায়, উখিয়ার রাজাপালং ইউনিয়নের তুতুরবিল এলাকার নাছির উদ্দিন একজন ট্রাক ড্রাইভার ছিল। তিনি তার তিন ছেলেকে পড়াশুনাে করাতে রাত দিন গাড়ী চালিয়ে জিবিকা নির্বাহ করত। নাছির উদ্দিন ড্রাইবারের মৃত্যুর পরে রাতারাতি বড় লোক হওয়ার নেশায় নুরুল বশর ও ও নুরুল হাকিম মরন নেশা ইয়াবা ক্রয় বিক্রয় শুরু করে। দুই ভাই গত ৪ বছরে শুন্য থেকে কোটিপতি। সে প্রতি মাসে একটি করে নতুন ব্রান্ডের গাড়ী ব্যবহার করে।

নুরুল হাকিমের ও নুরুল বশরের ডজন খানেক মাদক মামলা রয়েছে। তারা দুই ভাই আইনশৃংখলা বাহিনীর হাতে দফায় দফায় আটক হয়েছে। পরে অদৃশ্য কারনে বের হয়ে পুনরায় মাদক ব্যবসার সাথে জড়িয়ে পড়ে। তারা দুজনই এলাকার উঠতি যুবকদের টাকার লোভ দেখিয়ে ইয়াবা প্রচার করিয়ে থাকে। তাদের দুই ভাইয়ের ইয়াবা সিন্ডিকেটের স্বীকার এলাকার অনেক শিশু বয়সি ছেলে মাদক মামলায় জেলে আছেন। তুতুরবিল এলাকার শমসের আলমের ছেলে জসিম, নুর আলীর ছেলে শাহা আলম, আবদু শুক্কুর রিদুয়ান, শাহা আলমের ছেলে তারেক, মরিচ্যা জামবাগান এলাকার জসিম সহ অসংখ্য মানুষ জেল হাজতে আছে।

নুরুল হাকিমের যেসব মামলা রয়েছে, ডিএমপি নিউমার্কেট থানা এফ আই আর নাম্বার নং ৬/১৬৬, উখিয়া থানা মামলা নং ৩ জি আর নং ১১৭/১৭, সিএমপি বাকলিয়া থানা এফ আই আর নং ৩২ জি আর নং ৩১৫, চট্রগ্রাম পটিয়া থানা এফ আই আর নং ৩০ জি আর নাস্বার ৩০ সহ অসংখ্য নামে বেনামে মামলা রয়েছে। তার ভাই নুরুল বশরেরও আধাডজন মামলা আছে বলে জানান স্থানীয়রা।

স্থানীয় সচেতন মহল মনে করেন তাকে গ্রেপ্তার করে বিচারের মুখোমুখি করা না হলে পুরো তুতুরবিল এলাকার যুবসমাজ ধ্বংসের মুখে পড়বে।

অভিযুক্ত নুরুল হাকিম বলেন, আমার বিরোদ্ধে ৩টি মামলা রয়েছে। এলাকার কিছু লোক সড়যন্ত্র করে আমাকে ফাসিয়ে দিয়েছে। এই আমি দোকান করে চলি। আমি কোন মাদক ব্যবসায় জড়িত নয়।