উখিয়ায় অতিবর্ষণে সৃষ্ট বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে স্কাস

প্রকাশিত: ৮:৫৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৮, ২০২১

সংবাদদাতা:

উখিয়ায় অতিবর্ষণে সৃষ্ট বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের মাঝে নিজস্ব তহবিল থেকে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছে বেসরকারি সংস্থা- সমাজ কল্যাণ ও উন্নয়ন সংস্থা( স্কাস)।
রবিবার (৮ আগস্ট)সকালে রাজাপালং ২ নং ওয়ার্ডের শতাধিক পরিবারেরর মাঝে এ ত্রাণ সহায়তা দেয়া হয়।

স্কাসের উদ্দেগে অসহায় এসব মানুষের মাঝে পৌঁছে দেয়া হয় চাল, ডাল, তেল, আলু, পেঁয়াজ, তৈল, লবন সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পন্য। দূর্ভোগ, করোনার এই মহামারির সময়ে সাহায্য পেয়ে খুশি গ্রামের সাধারণ মানুষ। ত্রাণ নিয়ে আসা মাহমুদা বেগম জানান- বন্যায় দু’ দফায় ৫ দিন পানি বন্দি ছিলাম। ঘরের চুলায় আগুন জ্বলেনি।এখন পানি নেমে গেছে। স্কাসের পক্ষ থেকে চাল, ডাল, আলু সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পন্য পেয়েছি। এই সব নিয়ে পুরো পরিবার সপ্তাহ খানেক চলতে পারব।

সুজাত উদ্দীন জানান, বন্যায় ঘরে পানি উঠে সব কিছু শেষ হয়ে গেছে। স্কাসের দেয়া ত্রাণ পেয়ে অন্তত: সন্তানদের মুখে কিছু আহার তুলে দিতে পারব।

এদিকে বেসরকারি সংস্থা- সমাজ কল্যাণ ও উন্নয়ন সংস্থা-স্কাস চেয়ারপার্সন জেসমিন প্রেমা বলেন- বরাবরের মতোই তাঁরা দায়িত্ব হিসেবে অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে নিজস্ব তহবিল থেকে সহযোগিতার করতে পেরে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন জেসমিন প্রেমা।

ভবিষ্যতে স্কাস অসহায় মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।এসময় তিনি সমাজের বিত্তবানদেরকে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহব্বান জানান।

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন রাজাপালং ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মো: সালাহ্ উদ্দীন। বক্তব্যে তিনি বলেন, এবারের বন্যায় তার এলাকায় ব্যাপক ক্ষয় ক্ষতি হয়েছে।তিনি সমাজের বিত্তবানদের অসহায় এসব মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান।

ত্রাণ বিতরণকালে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্কাসের প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর তৌহিদুল মোস্তফা।
উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে উখিয়ায় বন্যায় ভেসে যাওয়া নিহত তিন পরিবারের মাঝে নগদ অর্থ সহায়তা দিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছিলো সমাজ কল্যাণ ও উন্নয়ন সংস্থা( স্কাস)।