Header Border

ঢাকা, বুধবার, ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ ইং | ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ (হেমন্তকাল) ২৪°সে
শিরোনাম :
অপহৃত ৯ বাংলাদেশী জেলেকে ফেরত দিল মিয়ানমার চমেক রোগী অপহরণ মামলার আসামী সাইফুল ইয়াবা সহ গ্রেপ্তার উখিয়া সী-লাইন ও কক্স-লাইন পরিবহন অফিসে চাঁদা না দেওয়ায় হামলার অভিযোগ! মর্গে মৃত নারীদের ধর্ষণ করত মুন্না ভগত! অপহরণ মামলায় জামিনে এসে বাদীকে হত্যার হুমকি অসামাজিক কার্যকলাপে জনতার হাতে গণধোলাই খেলেন অপকর্মের হোতা ও লম্পট সাইফুল দীর্ঘদিন পর ফিলিস্তিনকে সমর্থন ভারতের! কক্সবাজার জনতা ব্লাড ডোনার’স সোসাইটির বিনামূল্যে রক্ত নির্ণয় কর্মসূচি  কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য ইশতিয়াক আহমেদ জয়কে শুভেচ্ছা বার্তা জানালেন জুবাইর তুহিন ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসাশিক্ষক গ্রেফতার

কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য ইশতিয়াক আহমেদ জয়কে শুভেচ্ছা বার্তা জানালেন জুবাইর তুহিন

কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ইশতিয়াক আহমেদ জয় সদ্য অনুমোদিত বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে প্রভাবশালী সদস্য মনোনীত হওয়ায় তৃণমূল ছাত্রলীগ কর্মী জুবাইর হোসেন তুহিনের আবেগঘন শুভেচ্ছা বার্তা।

যা পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধরা হল:

সবাইকে আমার সালাম,আসসালামুআলাইকুম।
না লিখে পারলাম না কারণ কিছু মানুষদের কিছু কথা না বলে থাকতে পারছি না,,
তাই প্রথমে সবার থেকে মাফ চেয়ে নিচ্ছি,,
আমি জুবাইর হোসেন তুহিন কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের একজন নগণ্য কর্মী,ভার্সিটিতে ছাত্ররাজনীতির সাথে জড়িত ছিলাম,ভার্সিটি শেষ হওয়ার পর কক্সবাজার ফিরে এসে কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের সাথে জড়িত হলাম তখন আমার নেতা ছিলো ইশতিয়াক আহমদ জয় ভাই,উনি কিন্তু আমার সম্পর্কে চাচা কিন্তু আমি কোনদিন পরিচয় দেই নি,এমনকি আমার পরিবার থেকেও বলছিলো যে, তুমি ইশতিয়াককে তোমার পরিচয় দিচ্ছো না কেন, আমি বলছি আমি সম্পর্কে বিশ্বাসী না আমি কাজে বিশ্বাসি, আমার কাজের মাধ্যমে উনি আমাকে চিনবে,যাক ও অনেক কথা আরেকদিন লিখবো,
আসল কথায় আসি, ইশতিয়াক ভাইকে অনেকদিন থেকে চিনি,ভাইয়া যখন কক্সবাজার জেলার ছাত্রলীগের সভাপতি তখন অনেক ছেলেকে দেখতাম তার আশেপাশে,তার বাসায় , তার গাড়ির পিছনে, সামনে এককথায় উনার পাশে যাওয়া মুশকিল ছিলো কিন্তু গত ২ তারিখ যখন কক্সবাজার ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙ্গে নতুন কমিঠি হল সাথে সাথে সেসকল মুখগুলো উলঠে গেলো,ইশতিয়াক ভাইকে তারা আর চিনেই না, উদারহরণ স্বরুপ কিছু মানুষের কথা বলি সরাসরি নাম নিবো না ইঙ্গিতে বুঝতে পারবেন, ইশতিয়াক ভাইয়ের হাতে যে মানুষটি গড়ে উঠছে যাকে কক্সবাজারের লোকতো দুরের কথা তার এলাকায় চিনতো না তাকে, ইশতিয়াক ভাই ছাড়া যে মানুষটা কিছুই চিনতো না, ইশতিয়াক হাটতে গেলে সে,কোন কাজ করতে গেলে সে,কোন কমিটি দিতে গেলে সে, ইশতিয়াক ভাইয়ের কিছু হলে যে মানুষটা সবসময় সর্বপ্রথমে দুরে যেতো,মিছিল মিটিং শেষে ইশতিয়াক যার নাম সর্বপ্রথম নিতো সে মানুষটা ইশতিয়াক ভাইয়ের সাথে বেইমানি করতে দুইসেকেন্ড চিন্তা করে নি,চিন্তা করে নি যে আজ আমি যে জায়গায় দাড়িয়ে আছি তা কার অবদান,একবারের জন্যও চিন্তা করলো না যে যার অবদানের জন্য আজ আমি এত সম্মানের অধিকারী তার সাথে কেমনে বেইমানি করবো, আরেকজনের কথা বলি যখন আমি সদর রাজনীতির সাথে উতপতোভাবে জড়িত তখন একটা মানুষ কেন্ডিডেট হয় ইশতিয়াক ভাইয়ের প্যানেল থেকে, ইশতিয়াক ভাই তাকে কোনদিক দিয়ে চিনতো না যদিও সে বলতো ইশতিয়াক ভাই কাকে চিনো,কিন্তু একজন বড় ভাই তাকে ভাইয়ার কাছে নিয়ে যায়,তাকে কেন্ডিডেট বানায় এমনকি নেতাও বানায়, ও আরেকটা কথা বলি ঐ কেন্ডিডেট বা মানুষটি সবসময় বলতো তার রক্তে নাকি বেইমানি নেই,সে কারো সাথে বেইমানি করে না কিন্তু সে প্রথম বেইমানি করে করছে সে বড় ভাই বা সে মানুষটির সাথে যে তাকে নিয়ে গিয়ে ইশতিয়াক ভাইকে পরিচিত করে দিল, নেতা বানায় দিলো, এরপর সে মানুষটার সাথে বেইমানি করলো যে মানুষটি তাকে নেতা বানালো,তাকে সদর রাজনীতিতে জায়গা করে দিলো,কমিঠি দেয়ার সাথে সাথে চোখ উলটায় পেললো,একটোর জন্য তার লজ্জাবোধ বা তার আবেগ জাগ্রত হয়নি বেইমানি করতে,, তাদের কি বলবো,আমার ভাষা নেই????
যাক এটা আপনারা বুঝবেন,,
গত ২ তারিখ ইশতিয়াক ভাইয়ের কমিঠি শেষ হওয়ার পর অনেকে অনেক কথা বলছে কেউ বলছে তার হারায় গেছে,তার বেইল নেই,কেউ কেউ বলছে উনি তোর নেতা আমার নেতা না,
কিন্তু নভেম্বরের ১৪ তারিখ আমার নেতা,আমার ভাই প্রিয় ইশতিয়াক আহমদ জয় ভাই দেখায় দিছে উনি কি, উনি কি করতে পারে, উনি হারাবার পাত্র না,যারা বলছিলো উনি হারায় যাবে, বেইল নেই সেসকল শিক্ষিত ও মূর্খ আবালদের বলছি ইশতিয়াক আহমদ জয় একটা ব্র্যান্ড তাকে হারানো এত সহজ নয়,,
উনি সূর্যের মত আলোর বিকিরণ দিয়ে যাবে কক্সবাজার রাজনীতিতে,,,,,,
যিনি ২ তারিখ ছাত্রলীগের কমিঠি শেষে ১৪ তারিখ কেন্দ্রিয় যুবলীগের সদস্য হতে পারে তাকে তোমরা কেমনে বলো সে হারায় গেছে, কেমনে বলো কক্সবাজার রাজনীতিতে আর দেখা যাবে না,,,,
একটাই কথায় বলবো,কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগ অনেক হেড়ামওয়ালা মানুষ ছিলো যারা চাইলে ইশতিয়াক ভাইয়ের বাইরে গিয়ে তোদের মত ১৪ জনের কমিঠির নেতা হতে পারতো কিন্তু তারা নেতাকে সম্মান করে,নেতাকে শ্রদ্ধা করে কিছু করে নি কারণ তারা জানে ইশতিয়াক আহমদ জয় কোনদিন হারবে না এবং তাকে হারাতে পারবে না কোন আবালরা,
পরিশেষে বলবো,ইশতিয়াক আহমদ জয় একটি ব্র্যান্ডে নাম,তাকে হারাতে এসো না তুমি নিজেই হেরে যাবে,,,,,
অনেক অনেক ভালোবাসি প্রিয় ইশতিয়াক আহমদ জয় ভাইকে।

পরিশেষে নবনির্বাচিত বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সদস্য হওয়ায় আমার ব্যাক্তিগত শুভেচ্ছা এবং অভিনন্দন জানাই….

জুবাইর হোসেন তুহিন
আপনার কক্সবাজার ছাত্রলীগের একজন নগণ্য কর্মী ছিলাম।।।।

আপনার মতামত লিখুন :

আরও পড়ুন

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার মধ্য দিয়ে হলদিয়ার নবগঠিত ছাত্রলীগের কার্যক্রম শুরু
বাংলাদেশ ছাত্রলীগ হলদিয়া পালং ইউনিয়ন শাখার কমিটি ১ বছরের জন্য অনুমোদন দেওয়া হয়েছে
হলদিয়ায় ৬নং ওয়ার্ডে চলমান রাস্তার কাজের অগ্রগতি পরিদর্শনে ইউপি মেম্বার শামসুল আলম
ইমরান আলী ইমনকে আহব্বায়ক করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ পৌর ছয় নং ওয়ার্ডের আহব্বায়ক কমিটি ঘোষণা
হলদিয়ায় ইউপি মেম্বার শামসুল আলমের প্রচেষ্টায় মসজিদের নতুন দালান নির্মাণের কাজ শুরু
কক্সবাজার জেলা ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটিকে অভিনন্দন জানিয়ে সালাউদ্দিনের আনন্দ মিছিল

আরও খবর

Design & Developed BY Suhag rana 
ব্রেকিং নিউজ